ঢাকা | বুধবার | ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনে ৫০ বছর পর বিজয়ী আ’লীগ

spot_img

১৯৭৩ সালের পর আবারও হারানো আসন ফিরে পেয়েছে আওয়ামী লীগ। ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল-আশুগঞ্জ) আসনে উপনির্বাচনে ৬৬ হাজার ৩১৪ ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে বিজয়ী হয়েছেন নৌকার প্রার্থী শাহজাহান আলম সাজু।

রোববার (৫ নভেম্বর) সকাল আটটা থেকে বিকাল চারটা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। তবে কেন্দ্রে ভোটারদের উপস্থিতি ছিল অনেক কম। আসনটিতে তৃতীয়বারের মতো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়।

রিটার্নিং অফিসার ও উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্র জানায়, এবারের উপনির্বাচনে পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। সাজুর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী সাবেক সংসদ সদস্য ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জিয়াউল হক মৃধা কলার ছড়া প্রতীকে পেয়েছেন ৩৭ হাজার ৫৫৭ ভোট, জাতীয় পার্টির আব্দুল হামিদ ভাসানী লাঙল প্রতীকে পেয়েছেন ৩ হাজার ১৮৬ ভোট, ন্যাশনাল পিপলস পার্টির মো. রাজ্জাক হোসেন আম প্রতীকে পেয়েছেন ৭৩৯ ভোট এবং জাকের পার্টির প্রার্থী জহিরুল ইসলাম জুয়েল ৫৬১ ভোট পেয়েছেন।

এদিকে আওয়ামী লীগের হারানো আসন পেয়ে উল্লাস প্রকাশ করেন কর্মী সমর্থকেরা। বাজনা ও মিষ্টি মুখের মধ্য দিয়ে চলছে উল্লাস। বিজয়ী শাহজাহান আলম সাজুকে অভিনন্দন জানাচ্ছে জেলার নেতাকর্মীরা।

নির্বিঘ্নে ভোটগ্রহণ সম্পন্ন করতে ব্যাপক নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেয় জেলা প্রশাসন ও পুলিশ প্রশাসন। ভোটকেন্দ্র ও আশপাশের এলাকার নিরাপত্তায় সার্বক্ষণিক ৮ শতাধিক পুলিশ সদস্য, ৭ প্লাটুন বিজিবি সদস্যসহ র‌্যাব, আনসার, জুডিশিয়াল ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট মোতায়েন ছিল।

প্রসঙ্গত, গত ৩০ সেপ্টেম্বর ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য আব্দুস সাত্তার ভূঁইয়া মৃত্যুবরণ করায় আসনটি শূন্য ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন। বিএনপির দলছুট নেতা আব্দুস সাত্তার ২০১৮ সালে অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ (সরাইল ও আশুগঞ্জ) থেকে নির্বাচিত হন। পরবর্তীতে গত বছরের ডিসেম্বরে দলীয় সিদ্ধান্তে পদত্যাগ করেন তিনি। এরপর গত ১ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত উপ-নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে ভোটে দাঁড়িয়ে পুনরায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন সাত্তার।

spot_img

সম্পর্কিত আরো খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ খবর