ঢাকা | রবিবার | ২৩ জুন ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ | ১০:০০ পূর্বাহ্ণ
শিক্ষাক্যাম্পাসগবির ফলিত গনিত বিভাগে নবীণবরণ ও বিদায় সংবর্ধণা

গবির ফলিত গনিত বিভাগে নবীণবরণ ও বিদায় সংবর্ধণা

spot_img

সাভারের গণ বিশ্ববিদ্যালয়(গবি)এ ফলিত গনিত বিভাগের ২৮ তম ব্যাচের শিক্ষার্থীদের নবীণবরণ এবং ২০ তম ব্যাচের বিদায় অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে ।

বৃহস্পতিবার (০৭ মার্চ) সকালে একাডেমিক ভবনে বি ব্লকের ফলিত গনিত বিভাগের ৫১৩ নং কক্ষে নতুন ও বিদায় শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ আয়োজন অনুষ্ঠিত হয়। ফলিত গনিত বিভাগের বিভাগীয় প্রদান কনক চন্দ্র রায় এর সভাপতিত্বে এ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোঃ আবুল হোসেন।

এসময় তিনি নবাগতদের শুভেচ্ছা জানিয়ে বলেন, “তোমাদের নিয়েই গড়ে উঠুক আমাদের সেরা গণ বিশ্ববিদ্যালয়। ফলিত গনিত বিভাগ হলো সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় যা তোমাদের জীবনের সকল কাজেই প্রয়োজন হবে আর বিদায় শিক্ষার্থীদের দু’য়া ও সফলতা কামনা করি যেন তারা কর্মজীবনে স্বপ্নের প্রতিষ্ঠানে কাজ করার সুযোগ পায় ও বিশ্ববিদ্যালয়ের নাম উজ্জ্বল করে।”

বিজ্ঞান ও প্রকৌশল অনুষদের ডিন অধ্যাপক মোঃ করম নেওয়াজ বলেন, “তোমরা যারা বিদায় নিয়ে যাচ্ছ তোমরা কর্মজীবনে বিভিন্ন জায়গায় বিশ্ববিদ্যালয় কে প্রতিনিধিত্ব করবা কাজেই তোমরা যদি বিশ্ববিদ্যালয়ের সুনাম বয়ে আনো সেটিই আমাদের জন্য বড় সফলতা।”
ফলিত গনিত বিভাগের সভাপতি কনক চন্দ্র রায় বলেন, “বিশ্ববিদ্যালয়ে পড়ালেখার জায়গা এমন যে এখানে শিক্ষার্থীদের তা অর্জন করে নিতে হবে ক্লাসের পাশাপাশি যেকোনো সমস্যা শিক্ষকদের মাধ্যমে সমাধান করে নিতে হবে। তোমরা তোমদের কর্মসংস্থান নিয়ে যেকোন প্রকার চিন্তামুক্ত থাকতে পারো।”

তিনি আরও বলেন , “ফলিত গনিত বিভাগে বৃত্তির ব্যাবস্থা আছে । বিভাগে যে প্রথম স্থান হয় তাকে প্রতি বছরই বৃত্তির ব্যাবস্থা করে দেওয়া হয়। সম্প্রতি আমাদের আরও ১০ জন মেয়েকে বৃত্তির প্রদান করা হবে। এছাড়াও নানা ধরনের সুযোগ সুবিধা আছে এই বিভাগে।”

বিদায়ী শিক্ষার্থী আফসানা মিমি বলেন, “বিদায় শব্দটি সকলের কাছেই কষ্টের, তবুও আমাদের বিদায় নিতে হবে। এই বিশ্ববিদ্যালয় জীবনের দীর্ঘসময় শিক্ষকদের যে ভালোবাসা ও সহযোগিতা পেয়েছি তা সত্যি অনন্য। আমাদের শিক্ষকরা আমাদের যে সুন্দর স্বপ্ন দেখিয়েছেন আমরা যেন তার মর্যাদা রাখতে পারি।ইচ্ছে না থাকা সত্তেও এই প্রতিষ্ঠান থেকে আমাদের বিদায় নিতে হচ্ছে। আমাদের অজান্তে করা ভু্লগুলোর জন্য ক্ষমা চাচ্ছি আশাকরি মাফ করে দিবেন। নবীনদের বলব তোমরা আমাদের খুবই আদরের ও স্নেহের। তোমাদের জন্য সবসময় দোয়া থাকবে। পরিশেষে বলতে চাই সবাই আমাদের জন্য দোয়া রাখবেন আমরা যেন দেশের উন্নয়নে অবদান রাখতে পারি।”

নবীগত শিক্ষার্থী পীযুষ চন্দ্র রায় বলেন, “গণ বিশ্ববিদ্যালয়ের মতো একটি শীর্ষ স্থানীয় উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ফলিত গণিত বিভাগে আমি আমার নতুন জীবন শুরু করতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত ও গর্বিত মনে করছি। গণ বিশ্ববিদ্যালয়, আমাদের মুক্তিযুদ্ধের উপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠিত একটি উচ্চ শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। গণ বিশ্ববিদ্যালয় একটি স্বনামধন্য বিশ্ববিদ্যালয় এখানে প্রত্যেকটি শিক্ষক অনেক বন্ধুসুলভ এবং পূর্ণ সহযোগিতাপূর্ণ।”

উল্লেখ্য, এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন, কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক মোঃ সিরাজুল ইসলাম, রেজিস্ট্রার এস. তাসাদ্দেক আহমেদ,বিএমবি বিভাগের বিভাগীয় প্রধান সিনিয়র সহকারী অধ্যাপক ড. মো. ফুয়াদ হোসেন সহ বিভিন্ন বিভাগের বিভাগীয় প্রধান, শিক্ষক ও বিভাগের শিক্ষার্থীরা। আলোচনা সভা ও বিদায়ী শিক্ষার্থীদের সংবর্ধনা অনুষ্ঠান শেষে মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক আয়োজন করা হয়।

spot_img

সম্পর্কিত আরো খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

সর্বশেষ খবর